india chiana army

ভারত-চিন সংঘাতে মধ্যস্থতা করতে চেয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার মার্কিন প্রেসিডেন্টকে জবাব দিল চিন।

চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেন, ভারত ও চিনের সংঘাত মেটাতে কারও মধ্যস্থতার দরকার নেই। দুই দেশই যথেষ্ট।

বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসের ওভাল অফিসে সাংবাদিকদের বলেন, ভারত ও চিনের মধ্যে একটি ‘বড় দ্বন্দ্ব’ চলছে। পাশাপাশি ট্রাম্প যে মোদীকে ভদ্রলোক হিসেবে পছন্দ করেন তাও বলছেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি।

আরও-পড়ুনঃ স্মৃতিশক্তি বাড়াতে কোন খাবারগুলি খেতে হবে? অর্থাৎ স্মৃতিশক্তি বাড়াতে কী কী করণীয়?

ভারত-চিন সম্পর্ক নিয়ে এদিন তাঁকে প্রশ্ন করা হলে ট্রাম্প বলেন, “ভারত ও চিনের মধ্যে বড় দ্বন্দ্ব রয়েছে। দুটি দেশের প্রত্যেকটিকে ১.৪ বিলিয়ান মানুষ। দুই দেশেরই সামরিক বাহিনী শক্তিশালী। ভারত খুশি নয় এবং সম্ভবত চিনও খুশি নয়। “তখনই তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে তিনি কথা বলেছেন, চিনের সঙ্গে যা চলছে, তাতে মন ভালো নেই তাঁর।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকদিন ধরে লাদাখের কাছে চিন সীমান্তে যে সংঘাতে মুখোমুখি হয়েছে ভারত ও চিনের সেনাবাহিনী। এ প্রসঙ্গে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্যুইট করে মধ্যস্থতা করার কথা বলেছেন তিনি। লিখেছেন, ”আমরা ভারত ও চিন উভয়কেই বলেছি যে আমেরিকা প্রস্তুত আছে। সীমান্ত সমস্যা নিয়ে আমরা মধ্যস্থতা করতে রাজি।

আরও-পড়ুনঃ গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার আড়ালে আসলে করোনার হানা! চিন্তা বাড়াচ্ছে চিকিত্সকদের

Facebook Comments