পাক অধিকৃত কাশ্মীর
পাক অধিকৃত কাশ্মীর

যে কোনও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য তৈরি সেনাবাহিনী। আর সরকার চাইলে পাক অধিকৃত কাশ্মীর ও আমাদের হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: ‘বিপ্লবী ভারত’ থেকে আন্তর্জাতিক মিউজিয়াম- একুশের আগে বাঙালির আবেগে শান মোদীর

শনিবার দিল্লিতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে সেনাপ্রধান মুকুন্দ নারাভানে বলেন, উত্তর সীমান্তে যে কোনও চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করার জন্য তৈরি সেনা।  মেশিনের পেছনে মানুষটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ।  আমাদের জওয়ানদের যে কোনও কাজের দক্ষতা রয়েছে। সেনাবাহিনী হিসেবে আমরা দেশের সংবিধান, ন্যায়, সমতা, ভাতৃত্বের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

Army Chief General Manoj Mukund Naravane on threat by Pakistan Army&terrorists on LoC: LoC is a very active. Intelligence alerts are received on daily basis&they are looked into very seriously. Due to this alertness, we have been able to foil these actions known as BAT actions. pic.twitter.com/es4crM4f69

— ANI (@ANI) January 11, 2020

উল্লেখ্য, সম্প্রতি সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন অবসরপ্রাপ্ত সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেন,  ‘যাঁরা কোনও আন্দোলনকে ঠিক পথে চালিত করেন তাঁরাই আসল নেতা। সম্প্রতি বহু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা জনতাকে হিংসায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এটা কোনও নেতৃত্ব নয়।’ প্রাক্তন সেনাপ্রধানের ওই মন্তব্যের পর নতুন এই মন্তব্য করলেন নয় সেনাপ্রধান।

আরও পড়ুনঃ লস্কর জঙ্গিদের গাড়ি থেকে গ্রেফতার রাষ্ট্রপতি পুরস্কারপ্রাপ্ত পুলিস আধিকারিক

পাক অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে বিতর্ক টেনে আনেন সাংবাদিকরা। সেনাপ্রধান নারাভানেকে প্রশ্ন করা হয়, দেশের নেতারা যেমনটা বলেন যে পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের অং শ হওয়া উচিত তেমনটা কি হতে পারে? নারাভানে বলেন, সংসদের একটি সিদ্ধান্ত রয়েছে। সেটি হল পাক অধিকৃত কাশ্মীরের গোটাটাই ভারতের। সংসদ চাইলে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতেরই হবে। সেরকম কোনও নির্দেশ এলে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে সেনা।

পাক সীমান্তে পাকিস্তানি সেনার তত্পরতা নিয়ে সেনাপ্রধান বলেন, নিয়ন্ত্রণরেখায় সবসময় সজাগ থাকতে হয়। রোজই গোয়েন্দা রিপোর্ট পাওয়া যায়। সেগুলি অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হয়। তার জন্য পাক সেনা ব্যাট-এর তত্পরতা রুখে দেওয়া গিয়েছে।

সুত্র

Facebook Comments