জন্মনিয়ন্ত্রক অষুধ বাড়িয়ে দিতে পারে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি! দাবি বিজ্ঞানীদের
জন্মনিয়ন্ত্রক অষুধ বাড়িয়ে দিতে পারে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি! দাবি বিজ্ঞানীদের

মহিলাদের গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট তাঁদের হরমোনের উপর যথেষ্ট প্রভাব ফেলে। যে কারণে মহিলাদের অতিরিক্ত পরিমাণ গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট খেতে নিষেধ করে থাকেন চিকিৎসকরা।

সম্প্রতি জন্মনিয়ন্ত্রক অষুধের একটি মারাত্মক পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে সতর্ক করেছেন গবেষকরা। তাঁরা জানিয়েছেন, বার্থ কন্ট্রোল পিল বা জন্মনিয়ন্ত্রক অষুধ অতিরিক্ত মাত্রায় সেবনের ফলে মহিলাদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি প্রায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পায়।

সম্প্রতি একটি মার্কিন গবেষণালব্ধ রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। ওই রিপোর্ট অনুযায়ী, মার্কিন গবেষক দল ১,১০০ জন ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর উপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখেছেন, যাঁরা অতীতে বা বর্তমানে বার্থ কন্ট্রোল পিল খেয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশের বেশি মহিলার মধ্যে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি রয়েছে।

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, বার্থ কন্ট্রোল পিল বা গর্ভনিরোধক ওষুধ খাওয়া বন্ধ করার পর প্রায় ১০ বছর পর্যন্ত স্তন ক্যান্সারের কোনও লক্ষণই পরিলক্ষিত হয় না। গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে, ইস্ট্রোজেন কম পরিমাণে সেবন করলে এ ক্ষেত্রে ক্যান্সারের ঝুঁকি কম থাকে।

আমেরিকার ‘ফ্রেড হোচিনসন ক্যান্সার রিসার্চ সেন্টার’-এর গবেষকরা আরও জানতে পেরেছেন, স্তন ক্যান্সার সাধারণত খুব কম লোকের হয়ে থাকে। যেহেতু মহিলারা বিভিন্ন ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রক অষুধ সেবন করে থাকেন বা যে সব যুবতীরা বার্থ কন্ট্রোল পিল বেশি ব্যবহার করেন, তাঁদের ক্ষেত্রে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকটাই বেশি। সে জন্য জন্মনিয়ন্ত্রক অষুধ সেবনের মাত্রা ও বিভিন্ন ধরনের জন্মনিয়ন্ত্রণের ফর্মুলেশন নিয়ে সতর্ক হওয়া অত্যন্ত জরুরী।

আরও পড়ুন: গন্ধ শুঁকে নির্ভুলভাবে ক্যান্সার শনাক্ত করতে পারে কুকুর! দাবি বিজ্ঞানীদের

ব্রেক থ্রো ক্যান্সার-এর ডঃ ক্যারোলাইন ডাল্টন বলেন, বার্থ কন্ট্রোলের পিল খাওয়ার আগে মহিলাদের চিকিত্সকের সঙ্গে বার্থ কন্ট্রোলের বিভিন্ন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ও অন্যান্য বিকল্প উপায়গুলি নিয়ে আলোচনা করা উচিত। মার্কিন গবেষকরা জানাচ্ছেন, গত ৩০ বছরে ইস্ট্রোজেনের কম্বাইন্ড পিল-এর মাত্রা অনেকটাই কমানো হয়েছে। ইস্ট্রোজেনের মাত্রা কতটা কম হলে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায় বা একই থাকে, গবেষকরা এ বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি! তাঁদের মতে, এ বিষয়ে আরও বিস্তর গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

চিকিত্সকদের মতে, সাধারণত ৪০ বছরের কম বয়সী মেয়েদের মধ্যে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি কম থাকে। অথচ, নতুন গবেষণায় দেখা যাচ্ছে ইস্ট্রোজেন বার্থ কন্ট্রোল কম্বাইন্ড পিল সেবনের ফলে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি ৫০ শতাংশ বেড়ে যায়। ২১,৯৫২ জন রোগী, যাঁরা বিধি নিষেধ মেনে চলেন, তাঁদের মধ্যে ১,১০২ জনের উপর টানা ১০ বছর ধরে গবেষণা চালিয়ে (১৯৯৯ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত) মার্কিন গবেষকরা এই তথ্য পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

Facebook Comments