ভারতে এখন বিভাজনের রাজনীতি চলছে: মমতা -Deshebideshe

কলকাতা, ২৪ ডিসেম্বর- ভারতে এখন কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিভাজনমূলক শ্বাস চলছে বলে মন্তব্য করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স বিশ্ববিদ্যালয়ে বড়দিন উপলক্ষে আয়োজিত বিশেষ অনুষ্ঠানে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন প্রসঙ্গে ওই কথা বলেন তিনি। খবর এনডিটিভির।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, মানুষ দেশ ধ্বংসের আইন মানবে না। বর্তমানে দেশের মানুষ একটি নতুন সংকটের মুখোমুখি, তা হলো রাষ্ট্রীয় মদদে সাম্প্রদায়িক বিভাজন।

ফলে আদৌ মৌলিক, গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক অধিকার বজায় থাকবে কিনা সে ব্যাপারে আমি সন্দিহান।

মমতা বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে এ নিয়ে কথা বলব, ভাবনাচিন্তা করব। আমরা দেশকে বিভক্ত হতে দিতে পারি না এবং এমন শক্তির কাছে মাথা নত করতে পারি না, যা আমাদের দেশকে ধ্বংস করবে।

তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো বলেন, ভারত একটি বিশাল দেশ এবং এর সংবিধানে সবসময়েই ধর্মনিরপেক্ষতা, স্বাধীনতা, ন্যায়বিচার, সাম্য ও ভ্রাতৃত্বকে সমর্থন করার কথা বলা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ক্রিসমাস উপলক্ষে আমি যিশু খ্রিস্টের কাছে প্রার্থনা করছি যেন তিনি আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকার শক্তি দেন।

নতুন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন পাসের পর থেকেই এর বিরোধিতায় সরব হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার এই আবেদন করে সব অবিজেপি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আর বিরোধী দলের নেতাদের চিঠিও লেখেন তিনি।

আরও-পড়ুনঃ বড় ধাক্কা মমতা সরকারের: CAA-NRC সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখার নির্দেশ

তৃণমূল নেত্রী লেখেন, আসুন আমরা একসঙ্গে বসে পরিকল্পনা করি। আজ আমি এই চিঠি লিখছি অত্যন্ত উদ্বেগের সঙ্গে। দেশজুড়ে যে প্রস্তাবিত এনআরসি এবং সিএএ চালু হওয়ার কথা বলা হয়েছে, তাতে দেশের সব সম্প্রদায়, ধর্ম ও জাতির মানুষ আতঙ্কিত। পুরুষ-মহিলা, ধনী-গরিব নির্বিশেষে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। খুব খারাপ সময় চলছে।

আমাদের উচিত এখন দানবীয় এই আইনের বিরোধিতা করতে সংঘবদ্ধ হওয়া।

Source

Facebook Comments